গোটা মন্ত্রীসভা সহ পদ থেকে ইস্তফা দিলেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি! রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকেই কি যাচ্ছে রাজ্যটি?

0

পদ থেকে ইস্তফা দিলেন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি। কিন্তু এখন পর্যন্ত এর সঠিক কারণ জানা যায়নি। কিন্তু প্রশ্ন হল, কেন হঠাত ইস্তফা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর ঘনিষ্ঠ হিসাবে পরিচিত রুপানি? নাকি তাঁকে সরানো হল? এখনও বিজেপির তরফে সরকারিভাবে কিছু জানানো হয়নি। তবে, রাজনৈতিক মহলে বেশ কয়েকটি কারণ নিয়ে আলোচনা চলছে। প্রথমত, রূপানি জৈন সম্প্রদায়ের নেতা। গুজরাটে অন্য জনজাতির তুলনায় জৈনদের সংখ্যা কম। তাছাড়া সাংগঠনিক নেতা হলেও সেভাবে কোনওদিনই জননেতা হয়ে উঠতে পারেননি রূপানি।

গুজরাটে হচ্ছেটা কী! মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানির পর ইস্তফা দিয়েছে তাঁর গোটা মন্ত্রিসভাও। যার অর্থ, এই মুহূর্তে গুজরাটে কোনও সরকারই নেই। বিজয় রুপানির এই ইস্তফার ফলে বিজেপির হাতে এখন তিনটি বিকল্প অবশিষ্ট আছে। এক, রাজ্যে নতুন মুখ্যমন্ত্রী বেছে নেওয়া। দুই, রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করা। তিন, নতুন করে নির্বাচনের আয়োজন করা। গুজরাটে ভোট হওয়ার কথা আগামী বছর ডিসেম্বরে। সুতরাং তৃতীয় বিকল্পটি ভাবছেন না বিজেপি নেতারা। সূত্রের খবর, দ্বিতীয় বিকল্পটির কথাও ভাবা হচ্ছে না। আপাতত রুপানির উত্তরসূরি বাছতেই ব্যস্ত বিজেপি নেতারা।

বিজেপি সম্ভবত বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্রভাবশালী কোনও জনগোষ্ঠীর নেতাকে মুখ্যমন্ত্রী করতে পারে গেরুয়া শিবির। এছাড়াও এমন নেতাকে আনা হতে পারে, যার ব্যক্তিগত ক্যারিশমা রয়েছে। তাছাড়া করোনাকালে রূপানি সরকারের পারফরম্যান্স নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। এমনকী, গুজরাট হাই কোর্ট আহমেদাবাদের সরকারি হাসপাতালকে নরকরে সঙ্গেও তুলনা করেছিল। সরকারের পারফরম্যান্সও রুপানির সরার একটি কারণ হতে পারে। যদিও রুপানি নিজে বলছেন,”বিজেপিতে এই ধরনের পরিবর্তন অস্বাভাবিক কিছু নয়।”

এখন প্রশ্ন হল, গুজরাটে রূপানির উত্তরসূরি কে হবেন? ইতিমধ্যেই দলের সব বিধায়ককে আহমেদাবাদে পৌঁছানোর নির্দেশ দিয়েছে বিজেপি। এমনকী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও আজ রাতের মধ্যেই আহমেদাবাদ পৌঁছাতে পারেন বলে সূত্রের দাবি। শোনা যাচ্ছে গুজরাটের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন, বিদায়ী উপমুখ্যমন্ত্রী নীতীন প্যাটেল, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পুরুষোত্তম রুপালা এবং মনসুখ মাণ্ডব্য। লড়াইয়ে আছেন বিদায়ী কৃষিমন্ত্রী আর সি ফালড়ু, বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি সি আর পাটিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here