ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর এত সাহস নেই, অমিত শাহর নির্দেশই তৃণমূল নেতাদের ওপর হামলা করেছে বিজেপি: মমতা

0
ছবি : সংগৃহিত

ত্রিপুরায় তৃণমূল কর্মীদের ওপর হামলার জন্য  অমিত শাহকে দায়ী করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত শনিবার ত্রিপুরায় দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে গিয়ে হামলার মুখে পড়েন বাংলা থেকে যাওয়া তৃণমূলের ছাত্র ও যুবনেতারা। সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত, দেবাংশু ভট্টাচার্যর গাড়িতে পাথর ছোঁড়া হয়। ভাঙচুর করা হয় গাড়ি। আহত হন সুদীপ, জয়া। এর প্রতিবাদে থানার সামনে ধরনায় বসার পর রাতে তাঁদেরই গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রবিবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে ত্রিপুরায় গিয়ে তাঁদের জামিন করিয়ে নিজের সঙ্গে কলকাতায় ফিরিয়ে আনেন। সোমবার এসএসকেএম হাসপাতালে আহতদের দেখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী এই হামলার নেপথ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে দায়ী করেছেন।

রবিবার জামিন পাওয়ার পর রাতেই আহত দেবাংশু, জয়া, সুদীপদের নিয়ে কলকাতায় ফেরেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, ব্রাত্য বসু, কুণাল ঘোষেরা।

আহত নেতাদের ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। দেবাংশুকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়।সোমবার  আহত সুদীপ-জয়াদের দেখতে এসএসকেএম হাসপাতালে পোঁছান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বেলা এগারোটা কুড়ি মিনিট নাগাদ তিনি উডবার্ন ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা করেন আহত যুব নেতাদের সঙ্গে।

সেখানেই তিনি ত্রিপুরা সরকার ও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন “আমি নিশ্চিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশেই এই সব ঘটনা ঘটেছে।আমি বিশ্বাস করি ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর এই কাজ করানোর মতো সাহস নেই। আমাদের ছাত্র নেতাদের পুলিশের সামনে দাঁড় করিয়ে মারা হয়েছে। সুদীপের মাথা ফেটেছে, জয়ার কান ফেটেছে।যারা অত্যাচার করেছে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি, ৬ ঘণ্টা ওদের কোনো চিকিৎসা দেওয়া হয়নি। এতটাই নির্দয় বিজেপি, এর আগে ওরা অভিষেকের গাড়ি ভাংচুর করেছিল’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here