রাজ্যসভা থেকে রঞ্জন গগৈর সাংসদ পদ কেড়ে নেওয়া হোক, সুপ্রিম কোর্টে দাবি আইনজীবীরএবার রাজ্যসভা

0

থেকে রঞ্জন গগৈর সাংসদ পদ কেড়ে নেওয়ার দাবি জানালেন এক আইনজীবী। এই আইনজীবী হলেন সতীশ এস কামবাইয়ে।

সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতির পদ থেক অবসর নেওয়ার পর রাজ্যসভার মনোনয়ন পান রঞ্জন গগৈ। সম্প্রতি তাঁর মনোনয়নকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিমকোর্টে আবেদন করেন আইনজীবী সতীশ এস কামবাইয়ে। তাঁর দাবি, গগৈয়ের সাংসদ পদ অবিলম্বে কেড়ে নেওয়া হোক।

শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি থাকাকালীন বহু গুরুত্বপূর্ণ মামলার রায় দিয়েছিলেন গগৈ। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য তিন তালাক বন্ধ, শরবীমালা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশাধিকার নিয়ে রায় দেন তিনি। এছাড়া রয়েছে অযোধ্যার বিতর্কিত জমি সম্পর্কে বিবাদের নিষ্পত্তি।

বিরোধীদের অভিযোগ, এই রায়ের ‘পুরস্কার’ হিসাবে রাজ্যসভায় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে তাঁকে। আইনজীবী সতীশ আবেদনে জানান, রাজ্যসভার ওয়েবসাইট যে বায়োডাটা আপলোড করা হয়েছে, সেই অনুযায়ী গগৈ কোনও বই লেখেননি।কোনও সামাজিক, সাহিত্যমূলক কাজের সঙ্গে যুক্তও ছিলেন না। গগৈকে সরকার সংবিধানের যে ধারায় মনোনীত করেছেন, তা মোটেও তাঁর সঙ্গে যায় না।রাজ্যসভায় গগৈ মনোনীত হওয়ার পর জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন সমাজকর্মী মধু কিশোয়ার।

গত মার্চের মাঝামাঝি কেন্দ্র জানায়, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের মনোনয়নে এবার রাজ্যসভায় যাচ্ছেন গগৈ।যেদিন তিনি শপথ নেন, সেদিনও বিরোধীদের প্রবল প্রতিবাদের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। রবিশঙ্কর প্রসাদ বলেন, রাজ্যসভার একটা ঐতিহ্য আছে। বছরের পর বছর এখানে দিকপালরা মনোনীত হয়ে এসেছেন। আগেও প্রাক্তন বিচারপতি মনোনীত হয়েছিলেন। হইহট্টগোল যাঁরা করছেন, তাঁরা হাউজের ঐতিহ্য জানেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here